June 17, 2024, 1:26 pm

সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন ।

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃবস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতিক বলেছেন, ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে মাথা উচুঁ করে দাঁড়াবে বাংলাদেশ। এ জন্য সবাইকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। দেশের ব্যাপক উন্নয়নের কথা তুলে ধরে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী আরো বলেন, দেশকে উন্নয়নশীল দেশের সম পর্যায়ে তুলে নিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। আবারো আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে। এ সরকারই পারে দেশকে উন্নয়নের সাগরে ভাসাতে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার মুশুরী এলাকায় সফুরা কমিউনিটি সেন্টারে সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জ পত্রিকার ১১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বস্ত্র ও পাটমন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতিক উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক এবং দৈনিক মানবকণ্ঠের সিনিয়র সাব এডিটর মো. হানিফ মোল্লা। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার সূতিকাগার সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন- রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা ফেরদৌসী আলম নীলা, রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আলহাজ¦ ছালাহউদ্দিন ভুঁইয়া, রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. মাসুম চৌধুরী অপু, কার্যকরী সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি মো. রুহুল আমিন, সাংবাদিক জয়নাল আবেদীন জয়, রূপগঞ্জ উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ফেরদৌসী আলম রিয়া প্রমুখ। পরে কেক কেটে পত্রিকার জন্মদিন পালন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলাকালে উপস্থিতিদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।
সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, দেশের কল্যাণের কথা চিন্তা করে সংবাদ পরিবেশন করতে হবে। জনগণের দুর্ভোগ, দুর্দশা এবং উন্নয়ন সবকিছু জনগণের সামনে তুলে ধরুন। দেশের উন্নয়নের কথা লিখুন, জনগণের কথা লিখুন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথা লিখুন। তাহলেই দেশ এগিয়ে যাবে। পরে চলচ্চিত্র অভিনেতা-অভিনেত্রীদের সমন্বয়ে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় বিভিন্ন শ্রেণীপেশার ২ সহ¯্রাধিক নারী-পুরুষ অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।
‘স্বাধীনতা মানে মাথা নত না করা’- এই মূলমন্ত্রকে ধারণ করে ২০১৩ সালের ২৬ মার্চ যাত্রা শুরু করেছিল সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জ। সেই থেকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। দীর্ঘ ১০ বছর ধরে মাথা উঁচু করেই এগিয়ে চলেছে জনমানুষের এই কণ্ঠস্বর।
সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জের প্রতিষ্ঠাতা মো. হানিফ মোল্লা একজন আদর্শ সাংবাদিক। তিনটি নীতির ভিত্তিতে সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জ পত্রিকা প্রকাশের উদ্যোগ নেন তিনি। একটি হচ্ছে ৩০ লাখ শহীদের আত্মাহুতির মহাকাব্য মহান মুক্তিযুদ্ধকে সমুজ্জল রাখা, দ্বিতীয় হলো মুক্তিযুদ্ধের মূল নীতি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে তোলা এবং তৃতীয়টি হলো দেশের তৃণমূল মানুষের কাছে সত্য ঘটনা তুলে ধরে পাঠকদের হাতে পত্রিকাটি পৌঁছে দেয়া। রঙিন এই পত্রিকাটি প্রকাশ শুরু হয়েছিল নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থেকে। এর বিস্তৃতি ছড়িয়ে পড়ে রূপগঞ্জ, সোনারগাঁও, আড়াইহাজার, সিদ্ধিরগঞ্জ, বন্দর, ফতুল্লা, কালিগঞ্জ, মাধবদী, ডেমরাসহ আশাপাশের এলাকা। সম্পাদক মো. হানিফ মোল্লা তার স্বপ্ন বাস্তবায়নে সঙ্গে নিয়েছিলেন এক ঝাঁক মেধাবী সংবাদকর্মী ও কর্মচারী। বহুমাত্রিক প্রতিভা দিয়ে ঢেলে সাজানো হয়েছিল পত্রিকাটি। এ পত্রিকায় নিয়মিত সংবাদ ছাড়াও পাঠকপ্রিয় হরেক রকম কলাম, ফিচার, ঘটনার নেপথ্যের কাহিনীর বিশেষ রিপোর্ট প্রকাশের মাধ্যমে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জ। পাঠকদের কাছ থেকে প্রশংসিত হয়েছে পত্রিকাটি। বিগত দিনে সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জ পত্রিকার উদ্যোগে দেশের উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রেখে চলেছেন। প্রতিভাবান ব্যক্তিদের সম্মাননা স্মারক প্রদান করেও বেশ আলোচিত হন পত্রিকাটি। আর্থিক সংকটের কারণে বার বার পত্রিকাটি প্রকাশে বাঁধাগ্রস্ত হয়েও হাল ছাড়েননি সম্পাদক ও প্রকাশক মো. হানিফ মোল্লা।
পত্রিকাটির ক্ষুরধার রিপোর্টিংয়ের কারণে রূপগঞ্জে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতেও লেগেছে উন্নয়নের ব্যাপক ছোঁয়া। আর এসব সম্ভব হয়েছে নানা সমস্যা মূলক সংবাদ প্রকাশের কারণেই। তাছাড়া পত্রিকাটি সব সময় নির্যাতিত, নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন। এখন থেকে আরো সাহসী উদ্যোমে পত্রিকাটি নিয়মিত প্রকাশের উদ্যোগ নেন সম্পাদক ও প্রকাশক মো. হানিফ মোল্লা। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভক্ষণে সাপ্তাহিক আমাদের রূপগঞ্জের পক্ষ থেকে দেশবাসীকে অফুরান শুভেচ্ছা জানানো হয়।

এই বিভাগের আরও খবর


ফেসবুকে আমরা