November 30, 2022, 5:05 pm

শিক্ষা আইন-২০২২ এ ধর্মীয় শিক্ষা বাধ্যতা মূলক করার দাবীতে ইসলামী হাত্রসেনা না’গঞ্জ মহানগর এর মানববন্ধন

বিশেষ প্রতিবেদক : শিক্ষা আইন-২০২২-এ ধর্মীয় শিক্ষা বাধ্যতা মূলক করার দাবীতে ইসলামী হাত্রসেনা নারায়ণগঞ্জ মহানগর এর মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ ইং বাদ জুম্মা ইসলামী ছাত্রসেনা নারায়ণগঞ্জ মহানগর এর উদ্যোগে নগর ভবন সংলগ্ন বাইতুল ইজ্জত জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে শিক্ষা আইন-২০২২- এ প্রাথমিক থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের ধর্মীয় শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার দাবীতে ও জাতীয় শিক্ষাক্রমে ইসলামী শিক্ষাকে উপেক্ষা করার প্রতিবাদে মানববন্ধনের অনুষ্ঠিত হয় ।

মানববন্ধনে সংগঠনের সভাপতি গোলাম মোস্তাফা নিরবের সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নানি দেওয়ান এর সঞ্চালনায় ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলা এবং বাংলাদেশ হিজবুর রাসূল (সঃ) নারায়ণগঞ্জ জেলা নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি এডভোকেট এ.এম.এম. একরামুল হক বলেন, “অতি সম্প্রতি শিক্ষা আইন-২০২২ এর খসড়া চূড়ান্ত করা হয়েছে যেখানে জাতীয় শিক্ষাক্রম থেকে অত্যন্ত সুকৌশলে ইসলামী শিক্ষাকে বাদ দেয়া হয়েছে। যা একেবারেই অধিক ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। কেননা জাতীয় শিক্ষা নীতিতে সুস্পষ্টভাবে বলা আছে যে, শিক্ষার উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য হচ্ছে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষার মাধ্যমে উন্নত চরিত্র গঠনে সহায়তা করা। অথচ দুঃখজনক হলেও সত্য হলো এ প্রস্তাবিত শিক্ষা আইন-২০২২ ও শিক্ষাক্রমে শিক্ষার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য অমান্য ও অগ্রাহ্য করা হয়েছে। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ যে দেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, সংবিধানের ক্ষেত্রে আল্লাহর নামে শুরু করা ও রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম ও স্বাধীনভাবে অন্যান্য ধর্ম পালন করার কথা বলা আছে সেখানে ইসলাম শিক্ষা বাদ দেওয়া সংবিধান মান্নার শামিল। বর্তমান সরকার মডেল মসজিদ নির্মাণ করা সত্বেও শিক্ষাক্রম থেকে ইসলাম শিক্ষা বাদ দেয়া একেবারেই সাংঘর্ষিক ও বেমানান, বরং ডাবল স্ট্যান্ডার্ড নীতির প্রকাশ। অধিকন্তু শিক্ষাক্রম হতে ইসলামী শিক্ষা বাদ দেয়ার বিচ্ছুটি ধর্ম অতি সৃষ্টির গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ বলে দেশবাসী মনে করছে। তাই কারা মূলত এটি করছে, কার স্বার্থে ও কেন করছে তা যাচাই
করে জাতীয় শিক্ষানীতি ও পাঠ্যপুস্তক ইসলামী শিক্ষা পুনর্বহাল করাই সময়ের দাবী। অন্যথায় এর সারতার সংশ্লিষ্ট আমলগ ও সরকারকেই নিতে হবে।

উক্ত মানববন্ধনে বিশেষ বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা শহিদুল ইসলাম আল-আবেদী। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন কাওছার, সহ সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিঃ আব্দুল মালেক, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ তরিকুল হাসান লিকন, ইসলামী ত্রসেনা নারায়ণগঞ্জ মহানগর এর সহ সাধারণ সম্পাদক মোঃ সেলিম দেওয়ান, দপ্তর সম্পম্পক মোঃ কায়েত
মুনতাসির, কার সম্পাদক মোঃ আলমির সহ ইসলামী ছাত্রসেনা নারায়ণগঞ্জ মহানগর ও বন্দর উপজেলা ইসলামী ছাত্রসেনার নেতৃবৃন্দ।

এই বিভাগের আরও খবর


ফেসবুকে আমরা