August 2, 2021, 9:14 pm

ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি’র উদ্যোগে জনসচেতনতা মূলক প্রচার-প্রচারণা ও মাস্ক বিতরণ

শামীম আখতার বিভাগীয় প্রধান (খুলনা): কেশবপুরে ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি, গণমাধ্যম ও মানবাধিকার সংস্থার উদ্যোগে মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে জনসচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণার পাশাপাশি মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। রবিবার বিকালে পৌর শহরের ভোগতী-বায়সার মোড়, কালাবাসা মোড়, সদর ইউনিয়নের মধ্যকুল ও পুরাতন মূলগ্রাম বাজারসহ গ্রামের সাধারণ মানুষের মাঝে জনসচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণার পাশাপাশি মাস্ক বিতরণ করা হয়।
মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার অতিমাত্রাই বৃদ্ধি পাওয়ায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক লকডাউন ঘোষণা করে বিভিন্ন বিধি নিষেধ আরোপ করেছেন। সারাদেশে লকডাউন বাস্তবায়নের জন্য সিভিল প্রশাসন, পুলিশ বাহিনী, সেনাবাহিনী, বিজিবি, আনসার বাহিনীসহ সেচ্ছাসেবী সংগঠন করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়েই দিন-রাত নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তারই ধারাবাহিকতায় ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি গণমাধ্যম ও মানবাধিকার সংস্থার উদ্যোগে কেশবপুর উপজেলা শাখার সভাপতি সাংবাদিক শামীম আখতার মুকুলের নেতৃত্বে সংগঠনের নেতাকর্মীরা রবিবার দিনব্যাপী জনসচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণার পাশাপাশি পথচারী, শিশুসহ এলাকাবাসীর মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন। ওই সময় সকলের সার্বিক নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে জরুরি পরিসেবা ব্যতীত সকল গণপরিবহন যাতায়াত বন্ধ রাখতে ও অতীব জরুরি ছাড়া সকলকে ঘরে থাকতে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে জনসাধারণের কাছে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়। একই সাথে সকলকে করোনা সংক্রমণ এড়াতে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার, স্বাস্থ্যবিধি ও জনসমাগম এড়িয়ে চলা এবং একান্ত প্রয়োজন ব্যতীত ঘরের বাহিরে না আসার আহবান জানিয়ে প্রচার-প্রচারণাও চালোনা হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সুস্ময় হাওলাদার বিকাশ, সহ-সভাপতি রাবেয়া ইকবল, সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর হোসাইন, যুগ্ম- সাধারণ সম্পাদক আবুবক্কার সিদ্দিক, আব্দুল খালেক, কোষাধ্যক্ষ সঞ্জয় দাস, দপ্তর সম্পাদক রাকিবুল হাসান সুমন, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক সাকিব আল হাসান, কায্যনির্বাহী সদস্য জাহিদ হাসান, ১০ নম্বর সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী তহমিনা খাতুন ও কেশবপুর সদর ইউনিয়নের ৫ নম্বর আলতাপোল ওয়ার্ডের মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী শাহানাজ পারভীন প্রমূখ ।
সংগঠনের সভাপতি শামীম আখতার মুকুল বলেন, করোনাকালীন সময়ে সরকারী বিধিনিষেধ অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রেখে ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অযথা বাহিরে ঘোরাফেরা করা ব্যাক্তিদের নিজের ও পরিবারের স্বার্থে নির্দেশনা মেনে চলতে অনুরোধ করা হয়েছে। মহামারী করোনা সংক্রমণ রুখতে সরকারী বিধি নিষেধ মেনে নিজে ঘরে থাকি এবং অপরকে ঘরে থাকার আহবান করেন তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর


ফেসবুকে আমরা