September 16, 2021, 4:11 pm

তালায় করোনা কালীন বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।

বি, এম বাবলুর রহমান সাতক্ষীরাঃতালায় সাংবাদিকদের সাথে চলমান করোনা ভাইরাসের ও লকডাউন বেগবান করার পরিকল্পনা নিয়ে মতবিনিময় সভার আয়োজন করেন তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

রবিবার(১১ জুলাই) উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার তারিফ উল-হাসান ও সহকারী কমিশনার(ভূমি) এসএম তারেক সুলতান।

সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তালা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক এসএম নজরুল ইসলাম,তালা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মীর জাকির হোসেন,তালা সদর প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল জব্বার, তালা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জলিল আহমেদ,সি.সহ সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হাসান,তালা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বিএম জুলফিকার রায়হান,তালা সদর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আকবর হোসেন সহ তালা প্রেসক্লাব,তালা রিপোর্টার ক্লাব,তালা সদর প্রেসক্লাব কর্মরত প্রিন্টং মিডিয়ায়, অনলাইন মিডিয়ার ও মিডিয়া সাংবাদিকবৃন্দ।

মতবিনিময় সভায় তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সকল সাংবাদিকদের করোনা সংক্রমণ ও করোনা কালীন সহয়তা প্রদানের জন্য মতামত আহ্বানে গুরুত্বপূর্ণ মতামত প্রদান করেন তালা প্রেসক্লাব সভাপতি সাংবাদিক এস এম নজরুল ইসলাম। তালা রিপোর্টার ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক মীর জাকির হোসেন, সদর প্রেসক্লাবের সভা আব্দুল জব্বার, আব্দুল জলিল আহমেদ, আকবার হোসেন, জুলফিকার রায়হান, বি এম বাবলুর রহমান, আব্দুল মান্নান, শেখ ইমরান,এস এম হাসান আলী বাচ্চু, আফজাল হোসেন, মোঃ হাসানুর রহমান, মোঃ বাবলু রহমান প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার(ভূমি) বলেন,করোনা কালীন সময় প্রশাসনের সাথে সাংবাদিক মহল সহোযোগিতা করছেন। প্রশাসনের পক্ষ হতে তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ,বিজিবি,সেনাবাহিনী প্রতিনিয়ত টহল দিয়ে যাচ্ছেন। গ্রামের দোকানপাটে ভীড় ও সেখানে জুয়া খেলা বন্ধ করার প্রতি বিশেষ নজরদারি বাড়াতে প্রশাসনের নির্দেশে প্রদান করেন।করোনা কালীন সময়ে কিস্তি আদায়ের ব্যাপারে তিনি আরো বলেন,কোন এনজিও কিস্তি আদায় করতে দেখা গেলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। করোনা কালীন সময়ে এলাকায় চুরি ডাকাতি বৃদ্ধি পাওয়া মোবাইল পাপজি খেলা বন্ধ করতে সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

সাধারণ মানুষের ঘরে ফেরাতে প্রাণপণ চেষ্টা করে অব্যাহত “জরিমানা করা আমার উদ্দেশ্য নহে, সতর্ক করা টায় আমার মূল লক্ষ্য”। ইতিমধ্যে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে ১হাজার মানুষের মাঝে করোনা সহয়তা প্রদান করেন বলে জানান । এছাড়া প্রতিটি ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে ৩লক্ষ ৫০ হাজার টাকা করোনা কালীন সহয়তা বাবদ প্রেরণ করেছেন
। সামনে কোরবানী ঈদ সকলকে আরও সচেতন হতে হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। ঈদে কুরবানীর পশুর হাট কিভাবে বসানো যায় তাহার বিষয়ে সরকারী সিধান্ত মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান।

এই বিভাগের আরও খবর


ফেসবুকে আমরা