September 16, 2021, 4:03 pm

সন্তানসম্ভবা বলেই তড়িঘড়ি করে বিয়ে?

সিঙ্গেল মাদার হতে ভয় পেয়েছিলেন আর সেই কারণেই কি তড়িঘড়ি বিয়েটা সারলেন—এমন প্রশ্নে জর্জরিত বলিউড তারকা দিয়া মির্জা।

প্রশ্নের কারণ, গত ফেব্রুয়ারিতে বিয়ের পর এক মাস না পেরুতেই বেবি বাম্পের ছবি শেয়ার করেছেন ‘রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে’-খ্যাত এ অভিনেত্রী। আর এতেই তর্কে জড়িয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ।

গতকাল (৫ এপ্রিল) অভিনেত্রীর বেবি বাম্পের ছবিতে একজন তাকে সরাসরি লিখেছিলেন, ‘অভিনন্দন। কিন্তু যখন বিয়ের সময় মহিলাকে দিয়ে পৌরহিত্য করাতে পারলেন, তখন গর্ভাবস্থার কারণে বিয়েটা কেন করলেন? বিয়ের আগে কি মহিলারা সন্তানসম্ভবা হতে পারেন না? আজও কি এই ছুতমার্গ বজায় থাকবে?’

দিয়াও দমে থাকার পাত্রী নন। দিয়েছেন জবাবও। বলেন, ‘খুবই ইন্টারেস্টিং। প্রথমত, শুধু সন্তানসম্ভবা হওয়ার কারণে আমি বিয়ে করিনি। আমরা একসঙ্গে জীবন কাটাতে চেয়েছিলাম। যখন সুখবরটি জানতে পারি, সে সময় আমরা বিয়ের প্ল্যানিং করছিলাম। বিয়ের আনন্দ আরও বাড়িয়ে দিয়েছিল ওই খবর। কিছু সমস্যা থাকার কারণে আমরা বিষয়টি জানাইনি। আগে জটিলতাগুলো কাটাতে চেয়েছিলাম। চিকিৎসকদের সবুজ সংকেত মেলার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় গর্ভাবস্থার খবরটি জানাই। সুতরাং এটা স্পষ্ট যে বিয়েটা ফ্যাক্টর ছিল না।’

প্রসঙ্গত, গত ফেব্রুয়ারিতে দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসেন দিয়া মির্জা। বৈভব রেখির সঙ্গে তার প্রায় ৪ বছরের প্রেমের সম্পর্ক। মার্চের শেষ সপ্তাহে মালদ্বীপে যান তারা। সেখান থেকেই সামাজিক হ্যান্ডেলে মা হতে যাওয়ার খবরটি শেয়ার করেন দিয়া।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

এই বিভাগের আরও খবর


ফেসবুকে আমরা