April 14, 2021, 8:48 am

কেশবপুরে মারামারি মামলায় দুই আসামী গ্রেফতার

শামীম আখতার, ব্যুরো প্রধান (খুলনা):কেশবপুরে জমি-জমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় বাবা ও তার ২ ছেলে গুরুত্বর আহত হয়। এ ঘটনায় সোমবার (৪ জানুয়ারি) মিজানুর রহমান শেখ বাদি হয়ে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ২/৩ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা হওয়ার পর থানা পুলিশ ওই রাতেই ফতেপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে দুই আসামীকে গ্রেফতার করেছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ফতেপুর গ্রামের মৃত আব্দুল জলিল শেখের ছেলে মিজানুর রহমান শেখের সাথে ওই গ্রামের মৃত আব্দুল জালাল শেখের ছেলে আব্দুল গফুর (৩২), হাবিবুর রহমান (২৭) ও মোকলেচুর রহমানের (২২) জমি-জমা নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়। ওই বিরোধের জের ধরে রবিবার সকালে উক্ত আসামীগণসহ তাদের সহযোগী অজ্ঞাতনামা ২/৩ জন ব্যক্তি নিয়ে তাদের বাড়ির উঠানে গিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে। এ সময় প্রতিবাদ করলে আসামীদের কাছে থাকা মাছ মারার সূচালো ঝুরি কালা, বাঁশের লাঠি ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মিজানুর রহমান শেখ (৫০) ও তার বড় ছেলে মোঃ রাসেল (২৬) ও ছোট ছেলে রায়হান হোসেনের (১৭) উপর হামলা করে মারাত্মক আহত করে। এছাড়া আসামীরা রাসেলের দুই চোখের ভেতর আঙ্গল দিয়ে ঘুলায়ে দিয়ে চোখের মণিতে গুরুত্বর জখম করে। এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় রাসেলকে যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ও রায়হান হোসেনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। ঘটনা উল্লেখ করে মিজানুর রহমান শেখ বাদি হয়ে উপজেলার ফতেপুর গ্রামের মৃত আব্দুল জালাল শেখের ছেলে আব্দুল গফুর (৩২), হাবিবুর রহমান (২৭) ও মোকলেচুর রহমান (২২) সহ অজ্ঞাতনামা ২/৩ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা হওয়ার পর থানা পুলিশ ওই রাতেই ফতেপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে মৃত আব্দুল জালাল শেখের ছেলে আব্দুল গফুর (৩২) ও মোকলেচুর রহমানকে (২২) গ্রেফতার করেছে।
এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ জসীম উদ্দীন বলেন, মারামারি মামলায় ২ আসামীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। হামলায় ব্যবহৃত ঝুরি কালা জব্দ করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে যশোর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর


ফেসবুকে আমরা